অভিনেত্রী


বীথি তোকে অনেকদিন পর দেখলাম আজ , তোর সেই সবথেকে প্রিয় জায়গায় । চোখের কাজল টা ঠিক আগের মতই টানটান করে পরা , এখনও Figure সমন্ধে Conscious; প্রথমে তুই আমাকে চিনতে পারিস নি । তারপর বুঝতে পেরে সাবলীল হয়ে তোর নৌকার মত ঠোঁট দিয়ে অস্ফুটে বললি ‘ কেমন আছিস ? ভালো তো ? কিছুক্ষণের জন্য আমাকে  Nostalgia গ্রাস করেছিল কলেজের দিনগুলোর কথা ভেবে , যতই স্মৃতি তো স্মৃতিই ; ফিরতি প্রশ্নে তোর উত্তর ছিল হ্যাঁ ভালো  ।  তুই বিয়ে করেছিস প্রায় দুই বছর হয়ে গেল |

নিজের পৃথিবী ছেড়ে তুই অন্য কারোর পৃথিবীর প্রদীপের শিখা  । বেশিক্ষণ আর কথা হয়নি , তোর ও তাড়া ছিল আর আমারও কাজ ছিল । তুই ঘুরতেই তোর ঘাড়ের কাছে একটা দাগ দেখে আমি শিউড়ে উঠি ! হয়তো জিগ্যেস করা হয়নি আর এবং আর কোনোদিন হয়তো দেখাও হবে না , আজকে এতগুলো কথা তোকে লিখছি কলেজের আমাদের প্রথম Introduction এর দিন মনে করে , সেদিন তুই বলেছিলি যে তুই অভিনেত্রী হতে চাস , আজকের কাটা দাগ টা আর তোর ঐ ভালো এ দুটো জিনিস কে মিলিয়ে দিল তোর অভিনয় । সত্যিই এখন তুই অনেক Mature ও বড় অভিনেত্রী , রূপালি পর্দা তো কাল্পনিক , তুই তো জীবনের রঙ্গমঞ্চে সবার আগে , স্বপ্ন তোর সার্থক , খুব ভালো থাকিস রে পাগলী ।।।

                                                                                                                       ইতি                                                                                                                      তোর ইতিহাস

Categories: Story

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *